আজ ভোরে স্টোকে মারা গেলেন জনপ্রিয় অভিনেতা, টলিউডে এক বিরাট শূন্যতার সৃষ্টি,মমতা ব্যানার্জী করলেন টুইট

একটা প্রচলিত কথা আছে, ‘জন্মিলে মরিতে হবে, অমর কে কোথা কবে’। অর্থাৎ জন্ম নিলে মরতেই হবে। সে সমস্ত প্রাণী দের ক্ষেত্রেই এই কথাটি প্রযোজ্য। একবার জন্ম গ্রহণ করলে তাকে মরতেই হবে, এই বিশ্ব ব্রহ্মান্ডে কেউ অমর হয় না। কেউ অমর হতে পারে না। একটা সময় পরে সকলকেই মরতে হয়।

কিন্তু কোন প্রাণী বা মানুষের তো স্বাভাবিক ভাবেই মৃত্যু হওয়া উচিত। কিন্তু এমন অনেক ঘটনা প্রতিনিয়ত আমাদের চোখের সামনে আমরা দেখতে পাই, বা এনন অনেক মৃত্যু আমাদের চোখের সামনে ঘটে যেগুলো খুবই অবাস্তব ভাবে ঘটে, যেগুলো হয়তো ঘটার ছিল না, কিন্তু ঘটে গেছে। এমন অনেক মৃত্যুই ঘটে যেগুলো সত্যিই আনএক্সপেক্টেড। কিন্তু ঘটে যায় এমন মৃত্য প্রায়ই আমাদের চোখের সামনে। তেমনই সম্প্রতি মারা গেলেন রাজ্যরাজনীতির এক বিখ্যাত মানুষ। কে তিনি, জেনে নিন বিস্তারিত।

মৃত্যু বলতে জীবনের সমাপ্তি বুঝায়। জীববিজ্ঞানের ভাষায় প্রাণ আছে এমন কোন জৈব পদার্থের জীবনের সমাপ্তিকে মৃত্যু বলে। অন্য কথায়, মৃত্যু হচ্ছে এমন একটি অবস্থা যখন সকল শারিরীক কর্মকাণ্ড যেমন শ্বসন, খাদ্য গ্রহণ, পরিচলন, ইত্যাদি থেমে যায়। কোন জীবের মৃত্যু হলে তাকে মৃত বলা হয়।

বহু বছর ধরে থিয়েটারের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন গৌতম দে। ভিন্ন চরিত্রে তাঁর অভিনয় মন ছুঁয়েছিল দর্শকদের। তাঁর থিয়েটারগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল ‘সাবাস পেটোপাঁচু’, ‘দম্পতি’, ‘বৈশাখী ঝড়’। থিয়েটারের পাশাপাশি টেলিভিশন জগতেরও অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ হয়েছিলেন। অভিনয় করেছেন বেশ কয়েকটি বাংলা ছবিতেও। সেই ‘জন্মভূমি’ ধারাবাহিক থেকেই তাঁর অভিনয় দক্ষতার সাক্ষী হয়েছেন দর্শকরা।

এরপর ‘তিথির অতিথি’, ‘এ কোন সকাল’, ‘লাবণ্যের সংসার’, ‘ধ্যাত্ তেরিকা’, ‘ইস্টিকুটুম’, ‘কুসুমদোলা’র মতো জনপ্রিয় সিরিয়ালে দেখা গিয়েছে তাঁকে। দুরারোগ্য ক্যানসার নিয়েও অভিনয় চালিয়ে গিয়েছেন দীর্ঘদিন। দর্শকদের জানতেও দেননি একটু একটু করে ভিতরে ভিতরে ক্ষয়ে যাচ্ছেন। সম্প্রতি ‘রানি রাসমণি’ ধারাবাহিকেও অভিনয় করেছেন গৌতম দে।

আরও পড়ুন-  ব্রা হরকালেন ৠতাভরী! সমুদ্রে স্নানরত হট ছবিতে ভাইরাল সেক্সি অভিনেত্রীর ছবি, দেখুন একবার

প্রয়াত বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেতা গৌতম দে। তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। সোমবার সকাল ৭টা নাগাদ শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তাঁর মৃত্যুতে শোকাহত টলিপাড়া।

আরও পড়ুন-  BIG NEWS ( সবচেয়ে বড়ো খবর)- মারা গেলেন জনপ্রিয় ইনি! শোকে কান্নায় ভেঙে পড়লেন মমতাও

ইন্দর সেন পরিচালিত টেলি সিরিয়ালের মাধ্যমে ছোটপর্দায় পা রেখেছিলেন গৌতমবাবু। রবি ঘোষ, মনোজ মিত্র, দুলাল লাহিড়ি, লিলি চক্রবর্তী, শুভেন্দু চট্টপাধ্যায়ের মতো বিখ্যাত অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করেছেন এই অভিনেতা। স্ত্রী ও এক মেয়েকে রেখে বছর শেষে চিরঘুমে চলে গেলেন গৌতম দে। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া টলিপাড়ায়। টুইট করে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লেখেন, “বর্ষীয়ান অভিনেতা গৌতম দে-র প্রয়াণে আমি শোকাহত। দীর্ঘদিন বাংলা থিয়েটার ও ছবির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি৷ পাশাপাশি ধারাবাহিকেও ওঁর কাজ ছিল দেখার মত৷ খুবই গুণী এক অভিনেতাকে হারাল বাংলা। ওঁর পরিবারকে আমার সমবেদনা জানাই৷”

Updated: December 24, 2018 — 5:54 pm