ভগবান শ্রীকৃষ্ণ অর্জুনকে বলেছিল, কেন ভালো মানুষের সাথেই সব সময় খারাপ হয়? জানুন আসল ব্যাখ্যা…

পৃথিবীতে অনেক রকমের মানুষ বাস করে। কেউ খুব ভালো তো কেউ খুব খারাপ। এমন কিছু খারাপ মানুষ আছে যারা কোন রকম খারাপ কাজ করতে দ্বিধা বোধ করেনা। তারা কোন ভয় না পেয়েই অবলীলায় খারাপ কাজ করে থাকে। আবার কিছু মানুষ এমনও আছে যারা খারাপ কাজ করতে ভয় পায়, পাপের ভয় পায় তারা।

তারা ভাবে কোন খারাপ করলে যদি পাপের শাস্তি ভোগ করতে হয়। এই ভেবে ভালো মানুষেরা খারাপ কোন কাজ করতে ভয় পায়। সঙ্কটের মধ্যে পড়তে হতে পারে এই ভেবে তারা পিছিয়ে যায়। কিন্তু হয় তার উলটো টা। যারা ভালো মানুষ তারাই কষ্ট ভোগ করে। আর যারা পাপ করে, অন্যায় কাজ করে তারা বেশ সুখেই থাকে।

আপনি কি কখনো ভেবে দেখেছেন যে এরকম কেন হয়? ভালো মানুষকে কেন সবসময় খারাপ পরিস্থিতিতে পড়তে হয়? হয়তো সবার মনেই এরকম প্রশ্ন আসে। কিন্তু তার সদুত্তর কারোর কাছে নেই। এই উত্তর একমাত্র দিতে পেরেছিলেন ভগবান শ্রীকৃষ্ণ।

সকলের মত অর্জুনের মনেও এই প্রশ্ন এসেছিলো। পান্ডবগণ সর্বদা সৎ পথে থেকে এসেছেন। তাও তাদের জীবনে কেন এত কষ্ট? এই প্রশ্ন আসে অর্জুনের মনে। তখন সে প্রশ্ন করে শ্রীকৃষ্ণকে। তখন ভগবান অর্জুনকে সব উত্তর দেন। তিনি তার সেই জ্ঞান অর্জুনের মাধ্যমে প্রদান করেছিলেন সারা বিশ্বকে।

অর্জুনের প্রশ্ন ছিল যে “হে প্রভু! কেন সর্বদা ভালো মানুষের সাথেই খারাপ হয়?” তখন শ্রীকৃষ্ণ বলেন এরূপ বোধ হয় যে ভালো মানুষের সঙ্গে খারাপ হচ্ছে, কিন্তু আদৌ এরূপ হয়না। যে মানুষ সৎ ও সদাচারী হয় তারা সবসময় চায় তাদের আগের জন্মের সমস্ত পাপ যেন এই জন্মে শীঘ্রই শেষ হয়ে যায়।

তারা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব চায় পাপ থেকে মুক্ত হয়ে শান্তি প্রাপ্তি করতে। কোন মানুষ আগের জন্মে যা পাপ করেছিলো তার শাস্তি সে সেই জন্মে ভোগ করেনি। কিন্তু এই জন্মে সে সদাচারি মানুষ হয়ে জন্ম নিয়েছে। আগের জম্নের শাস্তি হিসাবে তাকে পাপ কর্মের শাস্তি এই জন্মে ভোগ করতে হচ্ছে।

এমনকি দেবতাদেরও নিজের ভুলের শাস্তি পেতে হয়। রাম রূপে বিষ্ণু বালিকে বধ করেছিলো। তাই তার পাপের শাস্তি পেতে হয়েছিলো পরের জন্মে কৃষ্ণ রূপে। তাকে তীরবিদ্ধ হতে হয়েছিলো। সেভাবেই মানুষের আগের জন্মের পাপের শাস্তি ভোগ শেষ হয়ে গেলে সে মুক্তির পথ দেখতে পায়।

Updated: March 30, 2019 — 8:23 pm