মালদায় প্রায় রাত ১টা নাগাদ ফাঁকা লরি থেকে উদ্ধার বিপুল নগদ টাকা,

0
65

চেকিং করতে গিয়ে উদ্ধার করা হল বস্তাভর্তি টাকা।গভীর রাতে চলছিল চেকিং তখন ই লরি চালককে সিটের নিচ থেকে পাওয়া গেল প্রায় এক কোটি মত ভারতীয় টাকা।এই টাকা উদ্ধারের ঘটনাতে জেলা পুলিশ ও প্রশাসনিক মহলে টনক নড়ে উঠল। টাকাগুলো লরি করে পাচার করা হচ্ছিল ঠিক কোন জাগায় তা নিয়ে মালদা পুলিশ তদন্ত করছে।

মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটে ।টাকা উদ্ধার হয় ইংরেজবাজার থানার যদুপুর এলাকার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে । চেকিং-এর সময় পুলিশ একটি ফাঁকা লরি দেখতে পাই আর সেখান থেকেই উদ্ধার হয় প্রায় এক কোটি টাকা। ওতে থাকা সব নোট ই দুই হাজার ও পাচঁশো টাকার নোট । পুলিশ জানিয়েছে যে , ঐ ধৃত লরি চালকের নাম ওমর ফারুক।

তার বয়স ২৫ বছর। কালিয়াচক থানার শাহবাজপুর গ্রামে চালকের বাড়ি। এই ঘটনার পর ওই গাড়িতে থাকা রাজুশেখ পলাতক। পুলিশ লাগাতার ভাবে তার খোঁজ চালাচ্ছে ।জানা গেছে ঐ পলাতক ও কালিয়াচক এলাকাতেই থাকেন । ইংরেজবাজার থানার আইসি শান্তনু মিত্র বলেন এত বিপুল পরিমাণ টাকা লরিতে ড্রাইভারের সিটের নিচে বস্তা বোঝাই করে পাচার করার কী কারণ তা জানবার জন্য ই চালককে পুলিশ জিঞ্জাসা করছে।

যদুপুর এলাকায় রুটিন মাফিক সন্ধ্যা থেকেই নজরদারি শুরু হয় । রাত ১১ টা নাগাদ কালিয়াচক থেকে একটি লরি উত্তরদিনাজপুরের দোমহনার দিকে যাওয়ার সময় লরিটি দাঁড় করিয়ে চালককে এমনি জিজ্ঞাসা করতে থাকে পুলিশ।

তখন ই চালকের অসংলগ্ন কথাবার্তা বলতে থাকে এতে সন্দেহ হয় পুলিশের। এরপর ই শুরু করা হয় তল্লাশি। এই ঘটনার পিছনে অবৈধ কোন ও কান্ড কারখানা থাকতে পারে বলে ই পুলিশের প্রাথমিক অনুমান। তাই এই টাকার বিষয়টি তদন্ত করছে পুলিশ গুরুত্ব দিয়েই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here