লিওনেল মেসি: ছোট একটা বালকের বড় স্বপ্ন- তার হার না মানার গল্প

0
33

কার্লোস রেক্সাস আর্জেন্টিনায় এসেছিলেন প্রতিভার খোঁজে তবে সেখানে কিশোর ফুটবলারদের দেখে তেমন মন ভরছিল না তিনি খুঁজছিলেন এমন কাউকে যে সবার মাঝে হবে অনন্য।নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজের মত ছোট ক্লাবের মাঠে তিনি খুঁজে পেয়েছিলেন মনের মতো ফুটবলার ছেলেটির নাম লিওনেল মেসি যে হয়েছে মেসি নামে বিখ্যাত। বার্সেলোনার একাডেমিক জন্য তাদের মেসিকে চাই এই প্রস্তাব নিয়ে মেসির মা বাবার কাছে যান তিনি। কিন্তু সেখানে তিনি জানতে পারেন মেসির গ্রোথ হরমোন এর একটা ঘাটতি আছে যার জন্য সে আর কখনো হয় বড় হতে পারে না সবকিছু জেনেও হাল ছাড়লেন না রেক্সাস।

বার্সেলোনায় ফিরে বার্সা বোর্ড রাজি করালেন মেসির হরমোনের চিকিৎসা করার জন্য মেসির বাবা মা তাকে নিয়ে চলে গেল স্পেনে প্রথমদিকে বার্সেলোনায় মেসির একেবারে মানিয়ে নিতে পারছিল না লা মেসিয়ায় প্র্যাকটিসের সময় টা শুধু ভালো লাগতো তার এখন 16 বছর বয়সেই বার্সেলোনা কচু চোখে পড়ে যেতে দেরি হল না মেসির লা মেসিয়ায় যোগ দেওয়ার পর তিন বছরের মধ্যেই নিজের কারিগরি দিয়ে সুযোগ করে নেই বার্সেলোনার মূল দলে 2005 সাল 1th মে মাত্র 17 বছর বয়সে বার্সেলোনার পক্ষে কনিষ্ঠতম গোলদাতা হিসেবে গোল করে ম্যাচে সেই বছরই অনূর্ধ্ব কুড়ি বিশ্বকাপ জিতে বিশ্ব ফুটবলের মেসি জানান দিয়ে দেয় নিজের প্রতিভার।

মেসির ক্যারিয়ারে একটাই অপ্রাপ্তি দেশের হয়ে অলিম্পিকের বয়স ভিত্তিক টুর্নামেন্ট ছাড়া বিশ্বকাপ জেতা হয়নি। 2014 তে বিশ্বকাপের খুব কাছাকাছি গিয়েও ছুঁতে পারেনি আর্জেন্টিনা। তবে এই বিশ্বকাপ আরেকটি সুযোগ তার কাছে আছে সকল বাধাকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে অমরত্বের পথে এগিয়ে গিয়েছেন মেসি সাফল্যের স্বর্ণশিখরে নিয়েছে তাকে আর্জেন্টিনার হয়ে অমরত্ব অর্জন এই এবার কি তিনি সক্ষম হবেন ? দেখাই যাক।

এই শুরু তারপর আর থেমে থাকতে হয়নি তাকে 2009 থেকেই পাঁচবারের বিশ্বসেরা ফুটবলার হয়েছে বারসা ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোল করেছেন সব থেকে বড় কথা বিশ্বের সেরা দুজন খেলোয়াড়ের একজন হবার পরেও যশ অহমিকা তাকে আঁকড়ে ধরে নি। বিশ্বসেরা হওয়ার পরেও তাই এই নম্রতা সকলকে মুগ্ধ করেছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here